Realme X50 Pro 5G Full Review 2020 (বাংলা রিভিউ, স্পেসিফিকেশন)

2
434
Realme X50 Pro 5G Full Review
Realme X50 Pro 5G Full Review

বাজারে ইতিমধ্যেই একাধিক 5G স্মার্টফোন লঞ্চ হয়েছে। এর মধ্যেই অন্যতম Realme X50 Pro 5G। Realme সবথেকে বেশি দামের স্মার্টফোন। ফ্ল্যাগশিপ সিরিজের এই ফোনে রয়েছে দুর্দান্ত ডিসপ্লে, শক্তিশালী চিপসেট, বিশাল ব্যাটারি ও ফাস্ট চার্জিং। এই রিভিউতে 5G নেটওয়ার্ক ব্যবহারের সুযোগ না মিললেও ফোনের পারফর্মেন্স, ক্যামেরা ও ব্যাটারির পরীক্ষা নিয়েছি আমরা। পড়ুন Realme X50 Pro 5G রিভিউ।

Realme X50 Pro 5G ডিজাইন

খুব কম সময়ের মধ্যেই ভারতের বাজারে জমি শক্ত করেছে Realme। কোম্পানির নতুন ফ্ল্যাগশিপ ফোনেও থাকছে অন্যান্য ফোনের মতো ডিজাইন। বাজারে অন্য যে কোন ফোনের থেকে তুলনামূলক বড় এই ফোনের পিছনে চারটি ক্যামেরা রয়েছে। সঙ্গে রয়েছে এলইডি ফ্ল্যাশ। ফোনের সামনে রয়েছে হোল-পাঞ্চ ডিসপ্লে। থাকছে ডুয়াল সেলফি ক্যামেরা। একাধিক গ্রেডিয়েন্ট ফিনিশে পাওয়া যাবে এই স্মার্টফোন।

ফোনের ডান দিকে রয়েছে পাওয়ার ও ভলিউম বাটন। ফোনের নীচে রয়েছে স্পিকার গ্রিপ, USB Type-C পোর্ট ও সিম ট্রে। Realme X50 Pro 5G -র ওজন 205 গ্রাম। এই ফোন থেকে 3.5 মিমি অডিও জ্যাক বাদ গিয়েছে। যদিও কোম্পানির তরফ থেকে জানানো হয়েছে বাজেট সেগমেন্টের স্মার্টফোনে 3.5 মিমি অডিও জ্যাক ব্যবহার চালিয়ে যাবে Realme। আপাতত শুধুমাত্র প্রিমিয়াম সেগমেন্টের স্মার্টফোন থেকেই এই ফিচার বাদ গিয়েছে।

মেটাল ফিনিশের এই ফোন হাতে নিয়ে প্রিমিয়াম ফিল পাওয়া যাবে। যদিও বেশিরভাগ ফোনের থেকে অনেকটা ভারি এই ফোন।

Realme X50 Pro 5G স্পেসিফিকেশন

Realme X50-Pro 5G Rust Red
Realme X50-Pro 5G Rust Red

Realme X50 Pro 5G -তে Android 10 অপারেটিং সিস্টেমের উপরে কোম্পানির Realme UI স্কিন চলবে। এই ফোনে রয়েছে একটি 6.44 ইঞ্চি 90Hz ডিসপ্লে। ফোনের ভিতরে রয়েছে Snapdragon 865 চিপসেট, Adreno 650 GPU, 12GB RAM ও 256GB স্টোরেজ।নতুন ফোনে 5G কানেক্টিভিটি ব্যবহার করেছে Realme। ডুয়াল ব্যান্ড 5G সাপোর্ট ছাড়াও কানেক্টিভিটির জন্য এই ফোনে রয়েছে 4G VoLTE, Wi-Fi 6, Bluetooth v5.1, GPS/ A-GPS ও USB Type-C পোর্ট। ফোনের ভিতরে রয়েছে 4,200 mAh ব্যাটারি। সঙ্গে রয়েছে 65W ফাস্ট চার্জ সাপোর্ট।যদিও এই ফোনে ওয়্যারলেস চার্জিং, আইপি ওয়াটার রেসিস্ট্যান্স রেটিংয়ের মতো প্রিমিয়াম ফিচার বাদ পড়েছে। Android 10 অপারেটিং সিস্টেমের উপরে এই ফোনে কোম্পানির Realme UI 1.1 চলবে।

Realme X50 Pro 5G পারফর্মেন্স ও ব্যাটারি লাইফ

এই ফোনের দুর্দান্ত স্পিড আমাদের মন জয় করেছে। Snapdragon 865 চিপসেটের জন্য এই ফোনের পারফর্মেন্স থেকে আমাদের প্রত্যাশা অনেক বেশি ছিল। বিগত কয়েক বছরের কোন ফ্ল্যাগশিপ চিপসেটেই পারফর্মেন্সের কোন খামতি দেখা যায়নি। 90Hz ডিসপ্লে, LPDDR5 RAM ও UFS 3.0 স্টোরেজের কারণে আরও ফাস্ট মনে হয়েছে এই স্মার্টফোন।Samsung Galaxy S20+ এর Exynos 990 চিপসেটের থেকে পারফর্মেন্সে অনেকটাই এগিয়ে থাকবে Realme X50 Pro 5G।

Realme X50-Pro 5G Moss Green
Realme X50-Pro 5G Moss Green

এই ফোনে রয়েছে একটি উজ্জ্বল ও কালারফুল ডিসপ্লে। যদিও 1440p ডিসপ্লের মতো শার্পনেস পাওয়া যাবে না। পাঞ্চ-হোল ডিসপ্লের নীচে এই ফোনে ডুয়াল সেলফি ক্যামেরা রয়েছে। এই ফোনে রয়েছে ডুয়াল স্টেরিও স্পিকার। ফুল স্ক্রিন ভিডিও দেখার সময় পাঞ্চ-হোল কাটআউট সমস্যা করেছে। PUBG Mobile ও Asphalt 9: Legend এর মতো গেম সর্বোচ্চ গ্রাফিক্স সেটিংসে খললেও কোন ল্যাগ চোখে পড়েনি।হাই পারফর্মেন্স গেম খেলতেও কোন সমস্যা হয়নি।
এই ফোনে রয়েছে একটি 4,200 mAh ব্যাটারি। এক চার্জে সহজে এক দিন চলবে এই ফোন। আগের দিন ব্যবহার পর দ্বিতীয় দিন দুপুরে আবার চার্জ করতে হয়েছে এই ফোন। আমাদের এইচডি ভিডিও লুপ টেস্টে 19 ঘণ্টা 04 মিনিট চলেছে এই স্মার্টফোন।

এই ফোনে রয়েছে 65W ফাস্ট চার্জ সাপোর্ট। মাত্র 7 মিনিটে এই ফোনের ব্যাটারি 25 শতাংশ চার্জ হবে। 50 শতাংশ চার্জ হতে সময় লাগবে 14 মিনিট। এছাড়াও 22 মিনিটে 75 শতাংশ ও 41 মিনিটে সম্পূর্ণ চার্জ হবে এই ফোনের ব্যাটারি।

Realme X50 Pro 5G ক্যামেরা

Realme X50 5G
Realme X50 5G

এই ফোনের পিছনে চারটি ক্যামেরা রয়েছে। প্রাইমারি ক্যামেরায় রয়েছে 64 মেগাপিক্সেল Samsung GW1 সেন্সর। সঙ্গে রয়েছে 8 মেগাপিক্সেল ওয়াইড অ্যাঙ্গেল ক্যামেরা, 12 মেগাপিক্সেল টেলিফটো লেন্স ও 2 মেগাপিক্সেল পোট্রেট ক্যামেরা। সেলফি তোলার জন্য রয়েছে ডুয়াল ক্যামেরা। এই ক্যামেরায় রয়েছে একটি 32 মেগাপিক্সেল প্রাইমারি সেন্সর ও 8 মেগাপিক্সেল ওয়াইড অ্যাঙ্গেল ক্যামেরা। Realme X50 Pro 5G ক্যামেরায় তোলা ছবিগুলি দেখে নিন। সব ছবির উপরে ট্যাপ করে সম্পূর্ণ সাইজ দেখা যাবে।

Realme X50 Pro 5G ফোনে 5G প্রযুক্তির জন্য অতিরিক্ত টাকা খরচ করতে হবে গ্রাহককে। যদিও এই মুহূর্তে 5G ফোনের প্রাসঙ্গিকতা নেই বললেই চলে। যদিও নিয়মিত বিদেশ ভ্রমণ করলে পকেটে একটা 5G ফোন রাখতেই পারেন।

2 COMMENTS

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here